ইমার্জিং কাপে পাকিস্তান যুবাদের তুলোধুনো করছে বাংলাদেশ

0
106

করাচির ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে আয়োজিত ইমার্জিং কাপের তৃতীয় ম্যাচে স্বাগতিক পাকিস্তানের বিপক্ষে ৩১০ রানের লক্ষমাত্রা ছুড়ে দিয়েছে বাংলাদেশের যুবারা। আজ প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ৩০৯ রান সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ।
জাকির হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন ও ইয়াসির আলির হাফ সেঞ্চুরিতে পাকিস্তান যুবাদের সামনে বড় রানের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে বাংলাদেশে অনূর্ধ ২৩ ক্রিকেট দল। এর আগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আরব আমিরাতের বিপক্ষে হারের পর দ্বিতীয় ম্যাচে হংকংয়ের বিপক্ষে জয় পায় বাংলাদেশে। তবে পাকিস্তানের বিপক্ষে তৃতীয় ম্যাচটিকে কাগজে কলমে সবচেয়ে কঠিন ভাবা হচ্ছিল। কিন্তু সকল দুশ্চিন্তার অবসান ঘটিয়ে এ ম্যাচে জ্বলে উঠেছেন ব্যাটসম্যানরা।
এক রানের জন্য অর্ধশতক ছুঁতে পারেননি নাজমুল হোসেন শান্ত। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮৫ রান করে নটআউট ছিলেন মোসাদ্দেক হোসেন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৬৯ রান ওপেনার জাকিরের।
করাচির ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনার মিজানুর রহমান ও জাকির হাসান উদ্বোধনী জুটিতে আসে ৪৮ রান। ব্যক্তিগত ২৫ রান করে মিজানুর ফিরে গেলে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে নাজমুল হোসেন শান্তর সঙ্গে ৯৮ রানের জুটি গড়েন জাকির। ২৭তম ওভারে দলীয় ১৪৬ রানে আউট হন জাকির। ৬৯ বলে ৮ চারে ৬৯ রান করেন তিনি।
১৪৬ থেকে ১৬১, এই ১৫ রানে তিন উইকেট হারায় বাংলাদেশ। দলীয় ১৫১ রানের মাথায় ফিরে যান নাজমুল হোসেন। আর ১৬১ রানে ফিরেছেন পাঁচ নম্বরে নামা আফিফ হোসেন। ৫৪ বলে ৪ চারে নাজমুলের সংগ্রহ ছিল ৪৯। মাত্র ৬ রান করেছেন আফিফ। হঠাৎ ছন্দপতন হওয়া বাংলাদেশের ইনিংসের মেরামত করেন অধিনায়ক মোসাদ্দেক ও ইয়াসির আলি। মাত্র ৯৭ বলে ১২৬ রানের জুটি গড়েন তাঁরা। ৫ চার ও ২ ছক্কায় ৪৬ বলে ৫৬ রান করে আউট হন ইয়াসির। শেষপর্যন্ত অপরাজিত থাকেন হংকংয়ের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করা মোসাদ্দেক। তাঁর অধিনায়ক সুলভ ব্যাটিংয়ের ওপর ভর করেই ৩০৯ রানের বড় লক্ষ্যে পৌঁছায় বাংলাদেশ। ৭৪ বল খেলে মোসাদ্দেকের ব্যাট থেকে আসে ৮৫ রান। তিনটি চারের ইনিংসে ছয় ৪টি মেরেছিন তিনি।
৩১০ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ইতিমধ্যে সাত উইকেট হারিয়েছে পাকিস্তান। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত স্বাগতিকদের সংগ্রহ ৩৮ ওভারে ১৬৪ রানে ৭ উইকেটের পতন।
৯ ওভারে মাত্র ২০ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন স্পিনার নাঈম হাসান। মোসাদ্দেক ৬ ওভারে ২৭ রান দিয়ে ২ উইকেট পেয়েছে। বাকি দুই উইকেট নিয়েছে শরিফুল ইসলাম ও আরিফ হোসেন।

একটি মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন