৫ মিনিটের বেশি শিশুদের কাঁদা নিষেধ, জানালেন বিমানসেবিকা!

0
61

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ

কোলের শিশুকে সঙ্গে করে কোথাও নিয়ে যাওয়া মায়েদের পক্ষে বেশ সমস্যার। বিশেষ করে ট্রেন বা বিমানে এই সমস্যা আরও বেশি করে দেখা দেয়। যেমনটা ঘটল কৃপা প্যাটেল বালার সঙ্গে।

জানা গেছে, ইউনাইটেড এয়ারলাইনসের বিমানে করে তিনি সিডনি থেকে সানফ্রান্সিসকো যাচ্ছিলেন। সঙ্গে ছিল তার স্বামী এবং আটমাসের সন্তান। তার শিশু কেঁদে উঠলে বিমানসেবিকা তাকে স্পষ্ট জানিয়ে দেন যে ইউনাইটেড বিমানে শিশুদের কাঁদায় নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। যা শোনার পর একটু অবাক হয়ে যান কৃপা প্যাটেল।

কৃপা জানান, তিনি তার স্বামী এবং সন্তানের সঙ্গে বিজনেস ক্লাসে সফর করছিলেন। আচমকা তার আটমাসের ছেলে কেঁদে উঠলে বিমানকর্মী এসে জানান যে পাঁচ মিনিটের বেশি শিশুদের কাঁদা নিষেধ ইউনাইটেড বিমানে। অথচ কৃপার ছেলে কেদেই চলেছিল। কান্না থামছিল না।

তিনি বলেন, ‘‌সদ্যোজাতদের নিয়ে বিমানে সফর করা অভিভাবকদের জন্য মোটেও সহজ কাজ নয়। কিন্তু তা বলে শিশুদের কাঁদার ওপর বিমান কর্তৃপক্ষ কোনও নিষেধাজ্ঞা জারি করতে পারে না। এটা অস্বাভাবিক।’‌

কৃপা ফেসবুকে তার এই অভিজ্ঞতা লিখেছেন। তিনি এবং তার পরিবার সানফ্রান্সিসকোতে নেমে গোটা ঘটনাটি ইউনাইটেড বিমান সংস্থাকে জানান। বিমান সংস্থার পক্ষ থেকে তাদের কাছে ক্ষমা চাওয়া হয় এবং টিকিটের পুরো টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দেওয়া হয়।

কৃপা জানান, সদ্যোজাতদের নিয়ে বিমানে যাওয়া অভিভাবকদের কাছে যেমন চ্যালেঞ্জ, তেমনি অন্য যাত্রী এবং বিমানকর্মীরাও যদি বিষয়টি বোঝেন তবে ভাল হয়। এটা অন্য কারও সঙ্গেও হতে পারে। বিমানকর্মীদের আচরণ ব্যবহার নিয়ে এর আগেও যাত্রীদের কাছ থেকে বহু অভিযোগ পাওয়া গেছে। বেশ কিছু ঘটনা প্রকাশ্যেও এসেছে। তবুও টনক নড়েনি বিমান সংস্থাগুলির।

একটি মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন