নিউজ ডেস্ক: ভারতের কাছে দেশ বেচে দিচ্ছে আওয়ামী লীগ সরকার- বলে বিভিন্ন সময় বিএনপির তরফ হতে যে অভিযোগ তুলে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে বিশৃঙ্খলা তৈরির পরিকল্পনা করা হয়েছিলো সেই একই অভিযোগ উঠেছে বিএনপির বিরুদ্ধে। সাধারণ মানুষ বলছেন, যে মিথ্যে অভিযোগ তুলে বিএনপি আওয়ামী লীগকে বিতর্কিত করতে চেয়েছিলো এখন তারাই সে বিতর্কে জড়াচ্ছে। এখনতো মনে হচ্ছে, বিএনপি ক্ষমতা পাওয়ার আশায় দেশ বেচে দেয়ার পরিকল্পনা চালাচ্ছে।

পাশ্ববর্তী দেশ ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে ক্ষমতায় যেতে মরিয়া হয়ে উঠেছে বিএনপি। এ নিয়ে বিভিন্ন মহলে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা চলছে। গত কয়েক দিন ধরে বিএনপির একাধিক নেতা নয়া দিল্লি সফর করেছে। জানা গেছে, ক্ষমতায় যেতে সহায়তা চেয়ে ভারতকে বেশ কিছু অঙ্গিকারও দিয়েছে দলটি। ফলে ভারত সফরকে নিয়েও শুরু হয়েছে নতুনমাত্রায় আলোচনা-সমালোচনা।

এদিকে সম্প্রতি লন্ডন সফররত বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বিবিসির স্টুডিওতে এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ভারতের কাছে বিএনপি সুষ্ঠু-অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন চায়। মির্জা ফখরুলের এমন মন্তব্য নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তোলপাড় শুরু হয়েছে। তার বক্তব্যকে ‘দেশ বেচে দেয়ার পরিকল্পনা’ হিসেবে দেখছেন সাধারণ মানুষ।

মির্জা ফখরুলের ওই সাক্ষাৎকার শুনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একজন লিখেছেন, আন্দোলন-কর্মসূচি সফল না করতে পেরে বিএনপি এখন যেকোন মূল্যে ক্ষমতায় আসার পরিকল্পনা করছে। ভারতকে অঙ্গিকারনামাও দিচ্ছে। বিদেশিদের বিএনপি নেতাদের কাছে ধর্ণা দেয়া দেখে বোঝা যাচ্ছে তারা আসলে দেশ নয়, ক্ষমতা চায়।

যদিও বিএনপি নেতাদের এ সফর ব্যর্থ হয়েছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকগণ। তারা বলছেন, বিএনপি সরকারের আমলে উত্তর-পূর্ব ভারতের বিদ্রোহীরা বাংলাদেশে আশ্রয়-প্রশ্রয় দেয়া হয়েছিলো। ভারত তা নিয়ে নাখোশ। এছাড়া সেসময় দশ ট্রাক অস্ত্রের চালানের মতো ঘটনাসহ জঙ্গিবাদের অর্থায়নের মতো ঘটনা নিয়ে ভারতের উদ্বেগ রয়েছে। ভারত বিএনপিকে কিছুতেই বিশ্বাস করতে চায় না। তবে বিএনপি কোন পরিকল্পনা নিয়ে এগুচ্ছে তা এখনই স্পষ্ট করে বলা যাচ্ছে না।

একটি মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন